বাড়ছেই নিত্যপণ্যের দাম, টিসিবি ট্রাকে ভিড়

হু হু করে বাড়ছে নিত্যপণ্যের দাম। সেই সঙ্গে ট্রেডিং করপোরেশন অব বাংলাদেশের (টিসিবি) ভ্রাম্যমাণ ট্রাকেও বাড়ছে ক্রেতাদের ভিড়। ক্রেতারা বলছেন, নিত্যপণ্যের দাম এখন হাতের নাগালের বাইরে। তাই দীর্ঘ লাইনে দাঁড়িয়ে একটু ভোগান্তি হলেও টিসিবি থেকে পণ্য কিনছেন তারা।

সোমবার (১১ অক্টোবর) রাজধানীর বেশ কয়েকটি এলাকা ঘুরে দেখা যায়, টিসিবির ট্রাক দাঁড়ানো। দীর্ঘ লাইনে দাঁড়িয়ে পেঁয়াজ, তেল, ডাল, চিনি কিনছেন তারা। লাইন ভেঙে অনেকে আগে কিনতে চাচ্ছেন বলে তর্কাতর্কিও হচ্ছে,জাতীয় প্রেস ক্লাব ও সচিবালয়ের মাঝখানের রাস্তায় টিসিবির একটি ট্রাক দাঁড়ানো। পণ্য কিনতে এসে নারী ও পুরুষ পৃথক লাইনে দাঁড়িয়ে আছেন শতাধিক ক্রেতা। এখানে যারা পণ্য কিনতে এসেছেন তাদের মধ্যে প্রত্যেকেই মধ্যবিত্ত ও নিম্ন মধ্যবিত্ত শ্রেণির।

একটি বেসরকারি প্রতিষ্ঠানে অফিস সহকারীর কাজ করেন শফিউল। আধাঘণ্টা ধরে লাইনে দাঁড়িয়ে মাঝামাঝি এসেছেন তিনি। সচিবালয়ের বিপরীতেই তার অফিস। টিসিবির ট্রাক এসেছে শুনে কিছুক্ষণের জন্য ছুটি নিয়ে টিসিবির ট্রাকে পণ্য কিনতে এসেছেন। তিনি বলেন, বেতন দিয়ে এমনিতেই সংসার চালানো কষ্ট। বাড়িতে টাকা পাঠাতে হয়। যদি নিজের খাওয়ার পেছনেই পয়সা শেষ হয়ে যায়, তাহলে বাড়ি পাঠামু কী? তাই অফিসের কাছেই আছে এজন্য কিনে নিলাম।

ট্রাক থেকে একসঙ্গে চিনি, ডাল, তেল, পেঁয়াজ কিনেছেন তিন সহকর্মী। তারা প্রত্যেকেই সচিবালয়ের স্টাফদের গাড়িচালক। জানতে চাইলে বলেন, ভাই, জিনিসের যে দাম। একদিনের বাজারও যদি সস্তায় কিনতে পারি তাও লাভ। আমরা তো আর বড় অফিসার না যে, অভাব নাই।

টিসিবির ট্রাকের বিক্রয়কর্মী মো. শাহীন জানান, পেঁয়াজ বিক্রি হচ্ছে ৩০ টাকায়, ডাল ৫৫ টাকা, চিনি ৫৫ টাকা ও এক লিটার সয়াবিন তেল বিক্রি হচ্ছে ১০০ টাকায়। জিনিসের দাম বাড়ায় ট্রাকে ভিড়ও বাড়ছে। দুপুরের মধ্যেই সব পণ্য বিক্রি শেষ হয়ে গেছে বলে জানান তিনি।

বাড্ডা এলাকায় প্রাণ সেন্টারের সামনে বিকেল ৪টার দিকে সব পণ্য শেষ করে চলে যাচ্ছিল একটি ট্রাক। শেষ মুহূর্তে পণ্য পাননি অনেকেই। এখানে নারী ক্রেতার সংখ্যা বেশি। এক বিক্রয়কর্মী বলেন, লাইনে এখনো অনেক মানুষ দাঁড়িয়ে। কিন্তু আমাদের সব পণ্য বিক্রি শেষ। এত বেশি ভিড় ছিল যে, তাড়াতাড়ি সব শেষ হয়ে গেছে। অনেকেই নিতে পারেনি।

টিসিবি থেকে পণ্য কিনতে এসেছেন এক নারী। তিনি বলেন, আমার স্বামী গাড়ি চালায়, আমি টুকটাক সেলাইয়ের কাজ জানি, যা ইনকাম হয় তাতে সংসারই চলে টেনেটুনে। এখন তো সব কিছুর দাম বাড়ছে। তাই ঘণ্টা ধরে দাঁড়িয়ে থেকেও যদি বাজার নিতে পারি, দু-তিনদিন তো অন্তত কম খরচে চলা যাবে, বেশ কিছুদিন ধরে তেলের দাম বাড়তি থাকলেও হঠাৎ করেই বেড়েছে পেঁয়াজের দামও। ৩০ টাকার পেঁয়াজের দাম সপ্তাহের ব্যবধানেই খুচরা বাজারে বেড়ে হয়েছে ৭০ থেকে ৮০ টাকা। সয়াবিন তেল ১৫০ টাকা। মসুর ডাল মোটাটা বিক্রি হচ্ছে ৯০ টাকায়। চিকনটা ১২০ টাকা কেজি।

Check Also

অপরাধের আরেক নাম রোহিঙ্গা

দিন দিন অবনতির দিকে যাচ্ছে কক্সবাজারের উখিয়া-টেকনাফের ৩৪ রোহিঙ্গা শিবিরের আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি। ইয়াবা পাচার, ডাকাতি, …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *